যেভাবে তালমিছরি খেলে সর্দি-কাশি ‌দ্রুত সেরে যাবে

প্রায় প্রাচীন আমল থেকে তালমিছরি সর্দি-কাশির জন্য ব্যবহার হয়ে আসছে। এখনও হচ্ছে। এবার জেনে নিন যেভাবে তালমিছরি খেলে সর্দি-কাশি ‌‌দ্রুত সেরে যাব’ে।তালমিছরি খেলে সুগার লেভেল নিয়ন্ত্রণ এ থাকে। চিনির বদলে তালমিছরি খেতে পারেন। তবে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর’্শ নিয়েই খাবেন। যাদের সুগার নেই,তারা নিশ্চিন্তে এটি খেতে পারেন।তালমিছরিতে আছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালশিয়াম,পটাশিয়াম,আয়রন,জিঙ্ক,ফসফরাস ইত্যাদি। আর আমাইনো এ’সিডস। ভিটামিন বি ১২ যায় এই তালমিছরিতে। যা শরীরের পক্ষে উপকারি।

প্রচুর পরিমাণ ক্যালশিয়াম আর পটাশিয়াম থাকার কারণে তালমিছরি হাড় ও দাঁত শক্ত করে ও হাড়ের সমস্যা দূর করে। মেয়েদের মেনোপজের পরে হাড় ক্ষয় ‘হতে শুরু করে, এই ক্ষয় রোধ করতে নিয়মিত তালমিছরি খেলে উপকার পাওয়া যায়।
প্রচুর পরিমাণ ক্যালশিয়াম আর পটাশিয়াম থাকার কারণে তালমিছরি হাড় ও দাঁত শক্ত করে ও হাড়ের সমস্যা দূর করে। মেয়েদের মেনোপজের পরে হাড় ক্ষয় ‘হতে শুরু করে, এই ক্ষয় রোধ করতে নিয়মিত তালমিছরি খেলে উপকার পাওয়া যায়।

তালমিছরির রস কাশি উপশম করতে সাহায্য করে এবং গলায় শ্লেষ্মা নরম করে দেয়, ফলে গলায় খুসখুসানি কমে যায়। এক টুকরো তালমিছরি মুখে নিয়ে চুষলে সর্দিতে এবং কাশিতে আরাম পাওয়া যায়।
তালমিছরির রস কাশি উপশম করতে সাহায্য করে এবং গলায় শ্লেষ্মা নরম করে দেয়, ফলে গলায় খুসখুসানি কমে যায়। এক টুকরো তালমিছরি মুখে নিয়ে চুষলে সর্দিতে এবং কাশিতে আরাম পাওয়া যায়।

পেঁয়াজের রসের সাথে তালমিছরি মিশিয়ে কিছুদিন খেলে কিছুদিনের মধ্যেই প্রস্রাবের সাথে কিডনি স্টোন বেরিয়ে যায়। তালমিছরি কিডনির জন্য উপকারি।পেঁয়াজের রসের সাথে তালমিছরি মিশিয়ে কিছুদিন খেলে কিছুদিনের মধ্যেই প্রস্রাবের সাথে কিডনি স্টোন বেরিয়ে যায়। তালমিছরি কিডনির জন্য উপকারি।

About alamin

Check Also

চুল পড়া বন্ধ করবে নিমের রস

নারীর দীঘল কালো চুলের প্রেমে পড়েছেন কবি- সাহিত্যিকরাও। রচনা করেছেন কবিতা, গান, উপন্যাস। তবে তাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *